ভাইরাল দুই ভাইকে পুরস্কৃত করতে চান প্রধানমন্ত্রী

responsive

জিবিনিউজ 24 ডেস্ক//

ফুটপাতে থাকা বাবার পুরোনো মিষ্টির দোকানে বসে মিষ্টি বিক্রি করে ভাইরাল হওয়া সেই দুই ভাই প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনার নজরে এসেছেন। কর্মের প্রতি এমন নিবেদন ও শ্রদ্ধার কথা জানতে পেরে তাদের প্রশংসা করেছেন তিনি। এ জন্য তাদেরকে পুরস্কৃত করতে চেয়েছেন।

নিজ সংসদীয় এলাকার এই আলোচিত বিষয়টি জানিয়ে ফেসবুকে স্ট্যাটাস দিয়েছেন- রাজশাহী-৬ আসনের সংসদ সদস্য ও পররাষ্ট্রমন্ত্রী প্রতিমন্ত্রী শাহরিয়ার আলম।

 

এতে তিনি বলেন, বিষয়টি মাননীয় প্রধানমন্ত্রীর নজরে এনেছি। তিনি আমাকে যা বলেছেন তা হলো, দুই ভাইকে বিশেষ পুরস্কার দেওয়া উচিত। কাজের মূল্যায়ন করছে। আমার অভিনন্দন জানাবে। আমার জন্য ওই দোকান থেকে মিষ্টি আনবে।

পররাষ্ট্র প্রতিমন্ত্রী আরো লেখেন- এখন আমারতো কাজ বেড়ে গেলো!

এদিকে রোববার (১ মে) সকালে ডা. মৃনাল কুমার পাল মিঠন জানান, পররাষ্ট্র প্রতিমন্ত্রীর একান্ত সহকারী এরই মধ্যে তাদের সঙ্গে যোগাযোগ করেছেন। তিনি প্রতিমন্ত্রীর পক্ষে প্রধানমন্ত্রীর অভিনন্দন বার্তা তাদের কাছে পৌঁছে দিয়েছেন।

তবে এখনো বিস্তারিত কিছুই ঠিক হয়নি। তার নানী স্ট্রোক করেছেন। তারা সেখানে যাচ্ছেন। সবকিছু ঠিক হলে তার ভাই ঢাকা যাবেন। আর প্রতিমন্ত্রী যেভাবে তাদেরকে নির্দেশনা দেবেন তারা ঠিক সেভাবেই মিষ্টি পাঠানোর ব্যাপারে প্রস্তুতি নেবেন বলেও জানান ডা. মিঠন।

ফুটপাতে থাকা বাবার পুরোনো মিষ্টির দোকানে বসে মিষ্টি বিক্রি করছেন- বিসিএস ক্যাডার দুই ভাই। সেই ছবি সামাজিক যোগাযোগমাধ্যমে এরই মধ্যে ভাইরাল হয়ে গেছে। ঈদের ছুটিতে গ্রামের বাড়িতে গিয়ে তারা বাবার আদি পেশাকে ভুলে যাননি। বরং আগের মতই সম্মানের সঙ্গে সমান গুরুত্ব দিয়ে সেই দোকানে বসে নিসংকোচে ফুটপাতের ওপর বসেই মিষ্টি করছেন।

আদি কর্ম ও পৈতৃক পেশার প্রতি তাদের এই পরম শ্রদ্ধার বিষয়টি এখন আলোচিত হচ্ছে সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যমে। সবার প্রশংসায় ভাসছেন ওই দুই ভাই।

রাজশাহীর বাঘা উপজেলার সমৃদ্ধ পৌরসভার নাম আড়ানী। সেখানে ঈদের ছুটিতে বাড়ি গিয়ে পিতার ফুটপাতে মিষ্টির দোকানে বসে এভাবেই বিসিএস ক্যাডার ও চিকিৎসক ভাই দোকানদারি করছেন। উপজেলার আড়ানী পৌর বাজারের চালের হাটে বাবার ফুটপাতের এই মিষ্টির দোকান রয়েছে তাদের। তাদের এই ব্যবসা তিন পুরুষের।

responsive

মন্তব্যসমূহ (০)


ব্রেকিং নিউজ

লগইন করুন


Remember me Lost your password?

Don't have account. Register

Lost Password


মন্তব্য করতে নিবন্ধন করুন